1. admin@sobsomoynarayanganj.com : admin : MD Shanto
রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৪:১৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ডেঙ্গুতে রেকর্ড ৬৩৫ রোগী হাসপাতালে, একজনের মৃত্যু সিদ্ধিরগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য সংগ্রহ ও মতবিনিময় সভা শক্তি রূপিনী দুর্গা মোবাইল চুরির অপবাদে কিশোরকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ উইঘুর মুসলিমদের উপর চীনের নির্যাতন বন্ধ করার দাবিতে পাগলায় জাগ্রত মুসলিম জনতার উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত বন্দরে মিশুক চালক কায়েসের হাত-পা বাধা জবাইকৃত লাশ উদ্ধার বন্দরে সরকারী স্কুলের জায়গা দখল করে রেখেছে ভূমিদস্যু জালাল আমাদের বিরুদ্ধে তারা প্রকাশ্যে ঘোষণা দিয়ে ষড়যন্ত্র করছে : মির্জা আজম খেলাধুলা মন-মানসিকতা ও শারিরীক বিকাশ ঘটায় : জাকির হোসেন চেয়ারম্যান বন্দর রুপালী আবাসিক এলাকায় অবৈধ মেলা

সিদ্ধিরগঞ্জে মাদক ব্যবসায়ী হান্নান ও মান্নানের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেফতারের দাবী

  • আপডেট সময় : বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৪৬ বার পঠিত

বন্দর প্রতিনিধিঃ

ডজনখানী মামলার আসামী এখন সাংবাদিকের কার্ড ব্যবহার করে বনে গেছে সাংবাদিক। হয়ে উঠেছে ভয়ংকার মাদক ব্যবসায়ী । নিজে থাকে আড়ালে। ছোট ভাই মান্নান দিয়ে চালাচ্ছে বিশাল মাদক ব্যবসা। গত কয়েক দিন আগে ১ কেজি গাজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে এলাকাবাসী আটক করে। সেই মাদক ব্যবসায়ী সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসির নিকট জবানবন্ধি দেয় যে, আটককৃত গাজার মালিক সাংবাদিক নামধারী মাদকের সেল্টারদাতা হান্নান প্রধানের ভাই মান্নান প্রধানের। যা পরবর্তী দিন বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ আকারে প্রকাশিত হয়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বেপরোয়া হয়ে উঠে হান্নান প্রধান। সে প্রতিশোধ নিতে সুযোগ খুজতে থাকে।

যার প্রেক্ষিতে গত ২ সেপ্টেম্বরের সন্ধ্যায় শাহীন নামে এক যুবককে একা পেয়ে ধারালো চাকু দিয়ে কুপিয়ে আহত করে বলে অভিযোগ করেন আহত শাহীন।

এই ঘটনায় সে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় সাংবাদিক নামধারী মাদকের সেল্টারদাতা হান্নান প্রধানকে প্রধান আসামী করে ও তার ভাই মাদক ব্যবসায়ী মান্নান প্রধানসহ আরো ১০জনের নামে একটি মামলা দায়ের করা। মামলা নাম্বার-১১। তারিখ-০৪/০৯/২২ইং।
মামলায় অন্যান্য যারা আসামী তারা হলো, ভাগিনা মিজান, সিফাত, হিমেল, সবুজ, সুমন, সোহেল, নাসির, কামাল। হান্নান প্রধানের বিরুদ্ধে রয়েছে ডজনখানী মামলা। এতগুলো মামলার আসামী হান্নান প্রধান এখনো বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছে। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছেনা। তাদের কারনে এলাকার যুব সমাজ হচ্ছে ধ্বংস। এলাকাবাসীর দাবী ভয়ংকর মাদক ব্যবসায়ী হান্নান ও মান্নানকে অনতিবিলম্বেচ গ্রেফতার করা হোক। এজন্য জেলা পুলিশ সুপারের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জবাসী।

অভিযোগ রয়েছে, সিদ্ধিরগঞ্জ সুমিলপাড়া এলাকার হাজেরা হান্নান এক ভয়ংকর মাদক ব্যবসায়ী। পিতার নাম ইউসুফ আলী প্রধান। যে “ক” লেখতে কলম ভাঙ্গে তিনটা সে সেজেছে সাংবাদিক। টাকা দিয়ে নিয়েছে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সভাপতি পদ। এই পদ ব্যবহার করে সাংবাদিকের কার্ড নিয়ে তার আড়ালে হান্নান প্রধান হয়ে উঠেছে ভয়ংকর মাদক ব্যবসায়ী। মাদকের ব্যবসা চালাতে গিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মানুষের সেল্টার নিয়েছে এই হাজেরা হান্নান। মাদক ব্যবসা করতে গিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের খাতায় কিশোরগ্যাং, মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে রয়েছে হান্নান প্রধানের নাম। রয়েছে হত্যা, মারামারি, মাদকসহ ডজনখানী মামলা। বিভিন্ন সময় হয়েছে বিভিন্ন পত্রিকার সংবাদ শিরোনাম। নিজেকে দুধের তুলসী পাতা বানাতে গিয়ে হান্নান তার মাদক ব্যবসা তারই আপন ভাই মান্নান ওরফে মান্নাকে দিয়ে পরিচালনা করছে। ভাই হান্নান প্রধানের মাদক ব্যবসা পরিচালনা করতে গিয়ে মান্নার বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় হয়েছে একাধিক মাদকের মামলা।

গত ১৫ মে রাতে সিদ্ধিরগঞ্জের ৬ নং ওয়ার্ডের সুমিলপাড়া বিহারী কলোনি এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে পানির ট্যাংক সংলগ্ন ছাপড়া টিনের ঘরের ভিতর থেকে মৃতঃ আবুল কাশেমের ছেলে নাজিম উদ্দিন (২৪)কে পুলিশ গ্রেফতার করে। প্রত্যক্ষদশীরা জানায়, অভিযানটি হান্নানের অফিসের সামনে করা হলেও দেখানো হয়েছে বিহারী কলোনী। উদ্ধারকৃত মাদক সবগুলো হান্নান প্রধানের। এস, আই সৈয়দ আজিজুল হকের নেতৃত্বে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার একটি চৌকস টিম এই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় । এবিষয়ে মাদক দ্রব্য আইনে থানায় একটি মামলা হয়েছে । মামলায় হান্নানের ভাই মান্নাকে ৪নং আসামী করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীর মুখের বক্তব্যের ভিত্তিতে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে যে, মাদকগুলো মান্নান প্রধানের । পুলিশের অভিযান টের পেয়ে মান্নান তার দলবল নিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায় বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে গত ১৮ এপ্রিল সোমবার আদমজী ইপিজেডের ইপিক গার্মেন্টস এর গেটের সামনে বালুর সাপ্লাইয়ের মেমো করিতে গেলে উপরে হান্নান প্রধান সহ তাদের সহযোগীরা সুপারভাইজার শাহপরান কে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে এবং ব্যবসা করতে হলে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এ সময় সুপারভাইজার চাঁদা প্রদান করিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মেরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে নগদ ৬০ হাজার টাকা ও দুটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন উল্লেখিত অভিযুক্তরা নিয়ে যায় এবং খুন করার হুমকি প্রদান করা হয়।

এ ঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় সুপারভাইজার শাহপরান একটি অভিযোগ দায়ের করেন। থানার এসআই হানিফ অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করছেন। গত বছর ১০ জানুয়ারী হান্নান প্রধানের চোরাই তেলের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে ১০ হাজার লিটার চোরাই ফার্নিশ তেল উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১১। এসময় হান্নানের সহযোগী চোরাই তেল চোর চক্রের সদস্য মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (২৮) নামে একজনকে আটক ও একটি তেলের ট্যাংকলরী জব্দ করেছে। অভিযান টেন পেয়ে হান্নান সুকৌশলে পালিয়ে যায়। (১১ জানুয়ারী) দুপুরে র‌্যাব-১১’র সদর দপ্তর থেকে সিপিএসসি’র কোম্পানী কমান্ডার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: জসিম উদ্দিন চৌধুরী, পিপিএম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, গত রবিবার (১০ জানুয়ারী) রাত সাড়ে ৭ টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জের আটি গ্রামের ছাপাখানার দক্ষিণ পাশে মোঃ হান্নান প্রধানের ফার্নিশ তেলের হাউজে অভিযান চালিয়ে এ চোরাই তেল ও চোর চক্রের সদস্যকে আটক করা হয় ।

র‌্যাব জানায়, সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল এলাকার পদ্মা ও মেঘনা ডিপো কেন্দ্রিক কয়েকটি চোরাই তেলের সিন্ডিকেট চোরাই তেলের অস্তানা গড়ে তুলেছে। হান্নান প্রধানের প্রত্যক্ষ মদদে ডিপো হতে অবৈধ উপায়ে তেল সংগ্রহ করে আটি এলাকায় মাটির নিচে ৫০ থেকে ৬০ হাজার লিটার ধারণ ক্ষমতার তেলের হাউজ তৈরি করে। সেখানে চোরাই ফার্নিশ তেল মজুদ করে এবং রাতের অন্ধকারে তেলের ট্যাংকার ট্রাকে করে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ ও বিক্রয় করে আসছে। এই চোরাই তেলের আস্তানার মালিক হান্নান প্রধানের বিরুদ্ধে ইতোঃপূর্বে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় বিভিন্ন অপরাধে ১০টি মামলা হয়। যা চলমান রয়েছে। পলাতক হান্নান প্রধান ও আটক জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

উল্লেখ্য, যেসব মামলায় আঃ হান্নান ওরফে হান্নান প্রধান আসামী সেগুলো হল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এফআইআর নং-৩৩ (২০/১০/২০১৪), এফআইআর নং-১২ (১২/৩/২০১৩), এফআইআর নং-২৯ (১৫/৯/২০০৬), এফআইআর নং-৩৫ (৩৩/৪/২০১৬), এফআইআর নং-১৪ (১১/৫/২০১৩), এফআইআর নং-১৫ (১১/৫/২০১৩), এফআইআর নং-৩২ (২৯/৫/২০০৯), এফআইআর নং-৯ (০৬/১/২০২০), এফআইআর নং-৭ (১৮/৫/২০২০), এফআইআর নং-৪২ (২০/৩/২০২০), এফআইআর নং-৩ (৩/৮/২০২০)। স্থানীয়দের অভিযোগ, আঃ হান্নান ওরফে হান্নান প্রধান নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সুমিলপাড়া সোনামিয়া বাজার এলাকার ইউছুফের ছেলে।

তিনি একটি পত্রিকার নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি পরিচয় দিয়ে থাকেন। গড়ে তুলেনে একটি সাংবাদিক সংগঠন। ওই কমিটির সভাপতি করা হয়েছে আঃ হান্নান ওরফে হান্নান প্রধানকে। তার বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় খোঁজ খবর নিয়ে হত্যাসহ ১১ মামলার তথ্য পাওয়া গেছে। এর মধ্যে মাদক ও বিস্ফোরক দ্রব্যসহ বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাও রয়েছে। এলাকাবাসী জানায়, আঃ হান্নান ওরফে হান্নান প্রধান ছিলেন বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগদান করা নাসিক ৬ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর একাধিক মামলার আসামী সিরাজুল ইসলাম ওরফে সিরাজ মন্ডলের সহযোগী।

রাজনৈতিকসহ বিভিন্ন কারণে এরই মধ্যে তার নামে হয়েছে হত্যাসহ ১১ মামলা। অধিকাংশ মামলায়ই আঃ হান্নান ওরফে হান্নান প্রধান এজহারভুক্ত আসামী। মামলার কারণে বিভিন্ন সময়ে একাধিক বার কারাবাসও করেছেন।

একাধিক মামলার কারণে প্রায় তাকে পুলিশ প্রশাসনের ঝামেলায় পোহাতে হয়। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিতে সে নিজে একটি পত্রিকার কার্ড সংগ্রহ করে সিদ্ধিরগঞ্জসহ নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকার গাড়ী চালক, মাদক ব্যবসায়ীসহ কয়েক জন টাউট শ্রেনীর লোক গঠন করেছে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার সিদ্ধিরগঞ্জ থানা কমিটি। ঐ কমিটির সভাপতি পরিচয় দিয়ে আঃ হান্নান ওরফে হান্নান প্রধান দাবড়িয়ে বেড়াচ্ছে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা এলাকা। সে আসলে ভালো মানুষের আড়ালে ভয়ংকার মাদক ব্যবসায়ী বলে এলাকাবাসী জানান। তার বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা পুলিশ সুপার ও র‌্যাবের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার সাধারন মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Bartoman News
Theme Customized By Theme Park BD