1. admin@sobsomoynarayanganj.com : admin : MD Shanto
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৩৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আরডিএ’র নকশা বাণিজ্য, দূর্নীতিবাজরা বহাল তবিয়তে ফতুল্লা রিপোর্টার্স ইউনিটির উপদেষ্টা মীর সোহেল আলীর জন্মদিন উদযাপন পাবলিক পরীক্ষায় ধর্ম শিক্ষা বহালের দাবিতে মানববন্ধন ও গনমিছিল ১২ কেজি এলপি গ্যাসের দাম বাড়ল ৪৬ টাকা আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বিশ্ব মানবাধিকার দিবস’২০২২ উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন মাদকাসক্তির প্রকৃতি ও আমাদের করণীয় শীর্ষক সেমিনারে যুব সমাজ হুমকির মুখে গণপরিবহনে যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে মহিলা পরিষদ এর মতবিনিময় সভা শেরপুরে প্রতিবন্ধী দিবস পালিত শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে বিশ্ব শিশু দিবস ও শিশু অধিকার সপ্তাহ পালিত শেরপুরের শ্রীবরদীতে জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে প্রতিবন্ধীদের মাঝে শীত বস্ত্র ও খাবার বিতরণ

ঈদের আগে দাম চড়া হোগলা পাটি ও খাটিয়ার

  • আপডেট সময় : শনিবার, ৯ জুলাই, ২০২২
  • ৫৩ বার পঠিত

ঈদুল আজহা উপলক্ষে বেড়েছে হোগলা পাটি আর খাটিয়ার কদর। চাহিদা মেটাতে বিভিন্ন অঞ্চল থেকে নারায়ণগঞ্জ শহরে এসেছে হোগলা পাটি। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ, এবার দাম বেশ চড়া।

হোগলার পাটির চাহিদা শুধু কোরবানির ঈদ এলেই বেড়ে যায়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখানসহ কয়েকটি এলাকায় এসব পাটি তৈরি হয়। নারায়ণগঞ্জের সেখান থেকেই পাটি আসে। ঈদকে কেন্দ্র করে শহরের প্রধান প্রধান সড়কে পাটি ও খাটিয়া নিয়ে বসেছেন মৌসুমি বিক্রেতারা। গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে নগরের অধিকাংশ গুরুত্বপূর্ণ সড়কের মোড় ও বাজারের সামনে পাটি আর খাটিয়া নিয়ে ব্যবসায়ীদের বসতে দেখা গেছে। ঈদ ঘনিয়ে আসায় ক্রেতারা দরদাম করে পাটি ও খাটিয়া কিনে নিয়ে যাচ্ছেন।

শহরের মণ্ডলপাড়া এলাকায় রফিকুল ইসলাম প্রতিটি পাটি ২০০-৩০০ টাকা দরে বিক্রি করছেন। একই মূল্যে ২ নম্বর গেটে পাটি বিক্রি করছেন মৌসুমি ব্যবসায়ী আবেদ আলী।

পাটির মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, এই পাটিগুলোর সারাবছর কোনো কদর থাকে না। কোরবানির ঈদের জন্য চার থেকে পাঁচ মাস আগে পাটি বানানোর জন্য অর্ডার দিয়ে আসতে হয়। তখন প্রতিটি পাটি ১০০ থেকে ১৫০ টাকা দিয়ে কিনতে হয়েছে। গত বছর তাঁরা আরও কম দামে কিনেছেন।

অন্যদিকে কাঠের খাটিয়ার মূল্যও চড়া। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে বড় বড় গাছ কিনে এনে কোরবানির পশু কাটার জন্য করাতকলে কেটে খাটিয়া তৈরি করা হয়। এ সময় আকারভেদে এক একটি খাটিয়ার দাম পড়ে ২০০ টাকা থেকে ৮০০ টাকা পর্যন্ত।

মণ্ডলপাড়ার খাটিয়া ব্যবসায়ী সবুজ জানান, বাজারে বিভিন্ন গাছের খাটিয়া রয়েছে। তবে মূলত তেঁতুল গাছের গুঁড়ি কোরবানির পশু কাটতে সবচেয়ে বেশি উপযোগী। কারণ এই গাছের গুঁড়ি থেকে পাউডার ওঠে না, মাংস লেগে থাকে না এবং এগুলো বেশ শক্ত ও দামেও সস্তা হয়। একেকটি কাঠের গুঁড়ি আকারভেদে ২০০ থেকে ৪০০ টাকায় বিক্রি করছেন।

ক্রেতাদের অভিযোগ, অন্যান্য বছরের তুলনায় পাটি ও খাটিয়ার মূল্য দিগুণ বেড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Bartoman News
Theme Customized By Theme Park BD