1. admin@sobsomoynarayanganj.com : admin : MD Shanto
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৭:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বেইলি রোডে অগ্নিকান্ডে নিহতের ঘটনায় আজমেরী ওসমানের শোক ভাষা সৈনিক সামসুজ্জোহার স্মরনে তাঁতীলীগ রামারবাগ ইউনিট এর উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত  প্রধানমন্ত্রীর আশ্রায়ন প্রকল্পের ঘর বিক্রির প্রতিযোগিতা চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মাঝে সৈয়দপুরে মজিবনগরে ২৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে দুই শিশুকে ধর্ষণ আমরা হয়তো চলে যাবো কিন্তু নবপ্রজন্ম কে সুযোগ দিতে হবে- এ্যাড,আবু হাসনাত বাদল সৈয়দপুর পাঠান নগরে নাসিম ওসমান ক্রীকেট টুনার্মেন্ট এর শুভ উদ্বোধন করেন – পারভীন ওসমান ফতুল্লা ইউপি”র উপ নির্বাচনে অটোরিকশা প্রতিক পেয়েছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী-ফাইজুল ইসলাম যেখানে মাদক না থাকে সেই এলাকা ফুলের বাগান হয়ে যায়- কালাম মুন্সি  রেকারের কনস্টেবল শহীদুল বাহিনীর মারধরে হসপিটালে ভর্তি সিএনজি চালক যুবরাজ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নব নির্বাচিত যুব ও ক্রীড়া উপ কমিটির শ্রদ্ধা নিবেদন

সাবদীতে খুনির হাতে বৃদ্ধা নারী খুন ধামাচাপা দিতে খুনি নিজেই মসজিদে মাইকে মৃত্যুর ষোষনা দিলেন

  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৮ জুন, ২০২২
  • ২১২ বার পঠিত

বন্দর প্রতিনিধিঃ

বন্দরে এক বৃদ্ধা নারীকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে হাফেজ আনিছ হত্যা মামলার আসামী শাহ আলম গংদের বিরুদ্ধে। নিহতের নাম মাফিয়া বেগম।
গতকাল ১৭ জুন শুক্রবার বিকাল ৪ টায় বন্দর উপজেলাধীন কলাগাছিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের কলাবাগ এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

হত্যাকাণ্ড ধামাচাপা দিতে হত্যাকারী শাহআলম নিজেই কলাবাগ জামে মসজিদের মাইকে স্বাভাবিক মৃত্যুর এলান কর। পরে লাশ গোসলের জন্য ব্যবস্থা করা হয়। এতে পুরো এলাকায় চাঞ্চল্যকর সৃষ্টি হয়। তবে ঘটনাটি জানাজানি হলে শাহ আলম সহ তাঁর পরিবারের লোকজন পালিয়ে যায়।

বিষয়টি খবর পেয়ে বন্দর থানার ইন্সেপেক্ট ( তদন্ত) মো. মোহসীন মিয়া ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরীয় হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।
এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে নিহতের মেয়ে লিপি ৪ জনের নাম উল্লেখ করে বন্দর থানায় হত্যা মামলা করেছেন।

মামলার আসামীরা হলো : কলাবাগ এলাকার আব্দুল আউয়াল, ছেলে শাহ আলম, মির্জা আলম, নুরনবী।
স্থানীয়রা জানান, আব্দুল আউয়াল মিয়ার চাচাতো বোনের মেয়ে নিহত মাফিয়া বেগম। তাঁর সাথে কিছুদিন পরপর ঝগড়া হয় এবং মারধর করে শাহ আলম সহ তাঁর বাবা। আজকে বিকালে কাঠাল নিয়ে মেয়ের বাড়ি যাওয়ার জন্য রওনা হলে রাস্তায় আসা মাত্র শাহ আলম লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করে এবং তার পিতা দাড়িয়ে থাকে বলে জানা গেছে।

তাঁরা আরও জানান, এর আগেও সাবদী বাজারে হাফেজ আনিছকে কুপিয়ে হত্যা করে শাহ আলম। কিন্তু সে আবারও আরেকটি খুন করে ফেলবে কেউ ভাবতে পারেনি। আমরা সকলে চাই খুনের বিচার হোক।

নিহতের মেয়ে লিপি জানান, আমার মা কাঠাল নিয়ে আমার শশুড় বাড়ি আসবে। কিন্তু আমার মাকে লাঠি দিয়ে আঘাত করে মেরে ফেলে আউয়াল গংরা। আমরা নিরিহ দেখে সারা জীবনটা তাঁরা আমার মাকে নির্যাতন করতো। আমি আমার মায়ের হত্যার বিচার চাই।

এবিষয় বন্দর থানার অফিসার ইনর্চাজ দীপক চন্দ্র সাহা জানান, চার জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। আসামীরা পলাতক রয়েছে, এখনও কোন আসামী গ্রেফতার হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Bartoman News
Theme Customized By Theme Park BD